1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
সোমবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২৩, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ইবি শাপলা ফোরাম নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছেন ড. জাহাঙ্গীর, দ্বিতীয় ড. আনোয়ার  গোপালগঞ্জে জমিজমা সংক্রান্ত নিয়ে ভাবির লাঠির আঘাতে দেবর নিহত। যে কারণে তোষামোদ করতে নিষেধ করেছেন রাসূল সা.। জলঢাকায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে, প্রবেশের রাস্তা নাই ! জগন্নাথপুরে সুপারি বিক্রি জমজমাট  জগন্নাথপুরে ১৬০ বস্তা ভারতীয় চিনি সহ দুই জন গ্রেপ্তার  বঙ্গবন্ধুর মার্কা নৌকা শেখ হাসিনার মার্কা নৌকা আমার মার্কা নৌকা বললেন মীর মোশারফ হোসেন। পঞ্চগড়ে মধ্যরাতে ইউএনওর গাড়ি খাদে পড়ে প্রকৌশলী নিহত স্বামীর খোঁজে ভারতীয় নারী পঞ্চগড়ে চুরির মামলার দুই আসামীকে গ্রেপ্তার করেছে জগন্নাথপুর থানা পুলিশ 

নওগাঁয় হ*ত্যা মামলার ১৭ বছর পর একজনের যাবজ্জীবন

  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৭ মে, ২০২৩
  • ৩৫ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ 

নওগাঁয় হত্যা মামলার দীর্ঘ ১৭বছর পর আসামী মোফাজ্জল হোসেন মোফা (৫৭) কে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই  মাস সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। এসময় মোফাজ্জল হোসেন আদালত উপস্থিত ছিলেন। বুধবার  দুপুর নওগাঁ অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মোঃ মোখলেছুর রহমান এ রায় প্রদান করেন। মোফাজ্জল হোসেন মোফা নওগাঁ সদর থানার গোয়ালী গ্রামের মৃতঃ তাছির এর ছেলে।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন- অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আব্দুল বাকী এবং আসামীপক্ষের আইনজীবী ছিলেন- অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান।

আদালত সূত্রে জানা যায়, গত ২০০৫ সালের ৩১ ডিসম্বর সন্ধ্যা ৭টায় নওগাঁ সদর থানার সোরাইল গ্রামের নয়ন (২০) কে বাড়ি থেকে মোফাজ্জল হোসেন মোফা সহ কয়েকজন ডেকে নিয়ে যায়। সেই রাতে নয়ন আর বাড়ি ফিরেনি। পরেদিন সকাল ১০টার দিকে পাশের আন্ধারকাটা গ্রামের মাঠে গাছের নিচে একটি বস্তায় দুই পা বারিয়ে থাকা মরেদেহ পড়ে থাকার সংবাদ ছড়িয়ে পড়ে। সংবাদ পেয়ে নিহতের মা পরিনা বেওয়া সেখান ছুটে যান এবং ছেলের মরদেহ বলে সনাক্ত করেন। পরে থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। মরদেহ গলায় ফাঁস লাগানো ও শরীর আঘাতের চিহ্ন ছিলো। ঘটনায় পরিনা বেওয়া বাদী হয়ে মোফাজ্জল হোসেন মোফা সহ অজ্ঞাত আরো দুই জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। মামলা দীর্ঘ শুনানি শেষে সন্দেহতীত ভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মোফাজ্জল হোসেন মোফা’র যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে আরো ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই  মাস সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া একই মামলায় অপর দুই আসামী শুকুর ও মোর্শদ এর সম্পক্তা না পাওয়ায় তাদের খালাস প্রদান করা হয়।

আসামীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মিজানুর রহমান বলন, তিনজনর মধ্যে আদালত দুই জনকে খালাস এবং একজনের যাবজ্জীবন দিয়েছে। মামলার রায় সন্তুষ্ট না হওয়ায় আমরা উচ্চ আদালতে যাবো। সেখানে আমরা ন্যায় বিচার পাবো বলে আশাবাদী।

বিচারর রায় সন্তুষ্ট প্রকাশ করে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আব্দুল বাকী বলেন, ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ভবিষ্যতে যেনো কেউ এ ধরণের অপরাধ করার সাহস না পায়। বাঁদী পক্ষ ও তাদের পরিবার এ রায় সন্তুষ্ট।

সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park