1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ১০:১২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জগন্নাথপুরে লাখ টাকার মাদকদ্রব্য সহ হিজড়া গ্রেপ্তার গোপালগঞ্জে সময় টিভির ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত। বোরহানউদ্দিনে পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু শ্বশুর বাড়িতে জামাইয়ের গলায় দড়ির ফাঁসি জগন্নাথপুরে মারামারি মামলার ৭ আসামী গ্রেপ্তার উপজেলা নির্বাচনের বাতাস বইছে পঞ্চগড় জেলা জুড়ে উপজেলা নির্বাচন ঘিরে ব্যাপক জনসমর্থন নিয়ে এগিয়ে নুরুল হুদা জগৎপুর আশ্রমের ১২৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠীর ঢোলবাদন জগন্নাথপুরে সোনালী ফসল বোরোধান কাটা শুরু , কৃষক- কৃষাণীর মূখে হাসি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী শহীদ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারে সন্তান রফিকুল ইসলাম ( মিটু )।

ধর্মপাশায় জাল সনদ তৈরি করে পরিবারের সম্পত্তি আত্মসাতের চেষ্টা 

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুন, ২০২৩
  • ১৫২ বার পঠিত

 

রবি মিয়া ধর্মপাশা   প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলায় জাল ওয়ারিশান সনদ তৈরি করে  পরিবারের অন্য ওয়ারিশানদের বঞ্চিত করে  সাকুল্য সম্পত্তি নামখারিজ করে আত্মসাৎ করার চেষ্টা করা হচ্ছে বলে ওই পরিবারের সদস্য রুমান শাহ্ ও আরমান আলী শাহ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে সুবিচার চেয়ে বুধবার ধর্মপাশা উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন অভিযুক্তের চাচাতো ভাই রনি শাহ্।

জানা যায়, ধর্মপাশা উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের সুনই গ্রামের বাসিন্দা মৃত হাজী দেওয়ান আলী শাহ্  তিন পুত্র আজমান আলী শাহ, সূরুজ আলী শাহ, মৌজ আলী শাহ ও চার কন্যা আনোয়ারা বেগম,সরলা বেগম, রেহেনা বেগম, দিলোয়ারা বেগমকে রেখে মৃত্যুবরন করেন।পরে সূরুজ আলী শাহ্ আজমান আলী শাহ্ স্বাভাবিক অবস্থায় মৃত্যুবরন করেন।
কিন্তু মৃত সূরুজ আলী শাহ্ এর পুত্র রোমান শাহ্ ও আরমান আলী শাহ্ পরিবারের সাকুল্য সম্পত্তি  আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে একটি জাল সনদ তৈরি করে নিজেদের নামে নামখারিজ করে পরিবারের অন্য ওয়ারিশানদেরকে তাদের ন্যায্য পাওনা সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার চেষ্টা করছেন। প্রকৃত ওয়ারিশান  আজমান আলী শাহ্ ও  মৌজ আলী শাহ্ দুজনই  বিবাহিত এবং তাদের স্ত্রী সন্তান রয়েছে। মৌজ আলী শাহ্ জীবিত রয়েছেন।
কিন্তু সনদে আজমান আলী শাহ্ ও মৌজ আলী শাহ্কে  অবিবাহিত অবস্থায় মৃত দেখানো হয়েছে এবং তাদের চার বোনের নাম উল্লেখ করা হয়নি। পরিবারের ওয়ারিশান মৌজ আলী শাহ্ ও আজমান আলী শাহ্ এর সন্তানদেরকে বাদ দিয়ে
শুধু মাত্র মৃত সূরুজ আলী শাহ্ এর দুই পুত্র সন্তান  রুমান শাহ, আরমান আলী শাহ, স্ত্রী ও দুই  কন্যা সন্তানের নামে জাল সনদ তৈরি করে  পরিবারের সাকুল্য সম্পদ নামখারিজ করার জন্য আবেদন করা হয়। জাল সনদে ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যের স্বাক্ষর জালিয়াতি করা হয়েছে বলে ও জানা গেছে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত আরমান আলী শাহ্ বলেন, জাল সনদ   উপস্থাপনের মাধ্যমে নাম খারিজের আবেদন করার বিষয়ে তিনি কিছুই জানেন না বলে জানান।
পাইকুরাটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বলেন, চেয়ারম্যান ও সদস্যের স্বাক্ষর জালিয়াতির মাধ্যমে রোমান শাহ্ গংদের নামে একটি জাল সনদ উপস্থাপনের মাধ্যমে জমি নাম খারিজের আবেদন করা হয়েছে তা নিশ্চিত হয়ে জালিয়াতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য  তিনি নিজে সহকারী কমিশনার (ভূমি) বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন।
উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)মো.অলিদুজ্জামান বলেন, বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park