1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ধর্মপাশায় দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত নড়াইলে জাপান-বাংলাদেশ গ্লোবাল নার্সিং কলেজে নির্মাণের শুভ উদ্বোধন। অধ্যক্ষের অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিবাদে বিক্ষোভে নেমেছে শিক্ষার্থীরা তিতাসে যুগান্তরের ২৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত নড়াইলে ১ মাদক কারবারী গ্রেফতার। ইবি ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে গলাটিপে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ  সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ নিরসনে ইসলামিক ফাউণ্ডেশন কর্তৃক প্রশিক্ষণ কর্মশালা।  রাজশাহীর শিবগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডারে মাদক বহনের সময় মাদক সহ ০১জন র‌্যাব-৫ এর হাতে গ্রেপ্তার  শান্তিগঞ্জে এম এ মান্নান প্রাথমিক মেধা বৃত্তি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গোপালগঞ্জের  রাবেয়া-আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ

ধর্মপাশায় সরকারি রাস্তার প্রায় দু’লক্ষ টাকা মূল্যের গাছ কেটে নিল রফিকুল ইসলাম মাষ্টার

  • আপডেট সময় : রবিবার, ২০ আগস্ট, ২০২৩
  • ৯৮৫ বার পঠিত

রবি মিয়া ধর্মপাশা (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ
সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের বৌলাম গ্রামে সরকারি রাস্তার পাশ থেকে দুই লাখ টাকা মূল্যের গাছ কেটে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে বাদশাগঞ্জ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক মো: রফিকুল ইসলাম মাষ্টার (৫০) নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে।

সরজমিনে গিয়ে দেখা মেলে দুটি মেহগনি গাছ ও একটি রেইনট্রি গাছ কেটে স্বানীয় স’মিলে নেয়া হয়েছে। বাকি আরও তিনটি গাছ কাটার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে রফিকুল ইসলামের নিওজিত গাছ কাটার শ্রমিকরা।

রফিকুল ইসলাম উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের বৌলাম গ্রামের মৃত আলীম উদ্দিনের ছেলে। তিনি এলাকায় একটি মাধ্যমিক স্কুলের ধর্মীয় শিক্ষক। স্বানীয়ভাবে প্রভাবশালী এই শিক্ষকের এক ভাই সদ্য অবসরপ্রাপ্ত সুনামগঞ্জ জেলার স্বানীয় সরকার ও প্রকৌশল বিভাগের সহকারী প্রকৌশলী। অন্যজন নেত্রকোনা জেলার প্রধান হিসাবরক্ষক।
সরেজমিনে দেখা যায়, জেলার ধর্মপাশা উপজেলার পাইকুরাটি ইউনিয়নের বৌলাম এলাকায় সবুজে ঘেরা ঢালাই রাস্তার দু-ধারে বেশ বড় বড় বাহারি গাছের সারি রয়েছে।

অপরদিকে রফিকুল ইসলাম দাবি করে বলেন, এই গাছগুলো আমার বাবা জমিতে বপন করেছেন, এই রাস্তা সরকারি রাস্তা না। এই রাস্তার কাগজপত্র ও আর এস রেকর্ড এখনো আমার বাবার নামে তবে কিভাবে এই রাস্তা সরকারি হয়।
তবে এলাকাবাসীর অভিযোগ এই জায়গা সরকারি, ডিসি খতিয়ানের জায়গা। তারা কৌশলে সরকারি এই জায়গা দখল করে আসছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্বানীয় এক বাসিন্দা জানান, শুধু এই তিনটি গাছ নয় পূর্বেও রফিকুল ইসলাম এই রাস্তার পাশে আগে চার থেকে পাঁচটি গাছ কর্তন করেছেন।
সরেজমিনে এই বাসিন্দার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়।
যেহেতু তিনি সমাজে একজন প্রভাবশালী ব্যক্তি, এটা সরকারি এল জি ইডির রাস্তা, তাই আমি ইউনিয়ন ভূমি অফিসের নায়েবকে বিষয়টি অবগত করি।

অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম বলেন, আমি পৈত্রিক জায়গা থেকে গাছ কাটছি, এছাড়া এই গাছগুলো আমার বাবার হাতে বপণ করা। আমার বিরুদ্ধে কেউ হয়-তো অপপ্রচার করছে যে আমি সরকারি জমি থেকে গাছ কাটছি।
যে রাস্তা দেখছেন এই রাস্তা আমাদের ব্যক্তিগত জমির ওপর দিয়ে গিয়েছে । আপনার নিজের রাস্তায় সরকারিভাবে ইট সলিং কিংবা ব্রিজ করেছে সরকার কেন এমন প্রশ্ন করল তিনি তার কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

ধর্মপাশা বন বিভাগের কর্মকর্তা রবিন আহমেদ বলেন, উপজেলার বৌলাম এলাকায় আমাদের বন বিভাগের কোনো বনায়ন নেই। তবে এটা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইউএনও সাহেবে দেখার দায়ীত্ব উনি ব্যবস্থা নিবেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শীতেষ চন্দ্র সরকার বলেন, সরকারি রাস্তার পাশ থেকে গাছ কাটার কোনো সুযোগ নেই, কেউ যদি এই ধরনের কাজ করে থাকে তবে তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park