1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:২৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ধর্মপাশায় দিনব্যাপী কৃষক প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠিত নড়াইলে জাপান-বাংলাদেশ গ্লোবাল নার্সিং কলেজে নির্মাণের শুভ উদ্বোধন। অধ্যক্ষের অনিয়ম-দুর্নীতির প্রতিবাদে বিক্ষোভে নেমেছে শিক্ষার্থীরা তিতাসে যুগান্তরের ২৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত নড়াইলে ১ মাদক কারবারী গ্রেফতার। ইবি ছাত্রলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে গলাটিপে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ  সন্ত্রাস ও উগ্রবাদ নিরসনে ইসলামিক ফাউণ্ডেশন কর্তৃক প্রশিক্ষণ কর্মশালা।  রাজশাহীর শিবগঞ্জে গ্যাস সিলিন্ডারে মাদক বহনের সময় মাদক সহ ০১জন র‌্যাব-৫ এর হাতে গ্রেপ্তার  শান্তিগঞ্জে এম এ মান্নান প্রাথমিক মেধা বৃত্তি পরীক্ষার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত গোপালগঞ্জের  রাবেয়া-আলী গার্লস স্কুল এন্ড কলেজের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ

বাঁচার আকুল আবেদন ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত শিক্ষার্থী রিয়াদ বাবুর

  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ২৯ আগস্ট, ২০২৩
  • ৮৩ বার পঠিত

আমিনুল ইসলাম, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:
দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার পৌরএলাকার কাঁটাবাড়ী গ্রামের হোটেল বাবুর্চি মজনু মিয়ার ১২ বছরের শিশু রিয়াদ বাবু। ব্রেন টিউমারে আক্রান্ত।ছেলের চিকিৎসার জন্য সবার কাছে সহযোগিতা কামনা করেছেন হতভাগ্য এই মজনু মিয়া।
রিয়াদ বাবু ফুলবাড়ীর গোলাম মোস্তফা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী।
জানা যায়, গত রমজান মাস থেকে হঠাৎ তিব্র মাথা ব্যাথায় কান্না শুরু করে রিয়াদ বাবু। রোজ রোজ ছেলের কান্না দেখে দিনমজুর পিতা মজনু মিয়া ছেলে রিয়াদ বাবুকে চোখের ডাক্তারের কাছে নিয়ে যান। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে জানতে পারেন ছেলের ব্রেণ টিউমার হয়েছে। সেটি মানতে না পেরে দিনাজপুর ও রংপুরে ডাক্তার দেখান অসহায় সেই পিতা। কিন্তু সেখানের ডাক্তাররাও সিটি স্ক্যান করে ব্রেন টিউমারের কথা জানান।
পরে ছেলেকে দিনাজপুরে নিয়ে নিজের সব পুঁজি দিয়ে চিকিৎসা চালান। কিন্তু সেখানের চিকিৎসক দেশে অপারেশন ঠিক হবে না বলে ফেরত পাঠান রিয়াদ বাবুকে। একই জবাব দেন রংপুরের চিকিৎসকরাও। তারা পরামর্শ দেন ভারতে নিউরোলজি বিভাগে চিকিৎসা করাতে। উপায়ান্তর না পেয়ে তড়িঘড়ি করে রিয়াদ বাবুকেকে বাঁচাতে বাবা মজনু মিয়া বিভিন্ন জনের কাছ থেকে টাকা নিয়ে পাসপোর্ট করতে দেন।
ভারতে যাতায়াতসহ ভারতীয় ডাক্তারের সিরিয়াল, পরীক্ষা-নিরীক্ষা, ওষুধ, দৈনন্দিন খরচসহ আরও প্রায় ৪ থেকে ৫ লাখ টাকার প্রয়োজন।
এত টাকা যোগাড় করার মতো অবস্থা নেই মজনু মিয়ার। বাড়িতে ঘর-ভিটাও নেই থাকেন ভাড়া বাড়িতে। তাই মজনু মিয়া ছেলেকে বাঁচাতে সবার সহযোগিতা কামনা করেছেন।
সহযোগিতার জন্য জনতা ব্যাংক, ফুলবাড়ী বাজার শাখা, দিনাজপুর এ সঞ্চয়ী একাউন্ট নাম্বার মোছা. রেশমা/০১০০২৪৭৪০১৭৬০। নগদ ও যোগাযোগের নং- ০১৮৭৪-৭৩২৬৬৩। মোছা. রেশমা রিয়াদ বাবুর মা। ##

সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park