1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
অপহরণকারী মানিক কে জয়পুরহাটের কাশিয়াবাড়ি থেকে গ্রেফতার ও ভিকটিম রায়তা কে উদ্ধার করেছে র‌্যাব গোপালগঞ্জে পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদকের জন্ম বার্ষীকি পালন। লোহাগড়ায় ৮৫ পিচ ইয়াবাসহ তেলকাড়ার রাকিব গ্রেফতার। জগন্নাথপুরে এক শিক্ষক এর ঘুষিতে অপর শিক্ষক আহত, একজন জেল হাজতে সুনামগঞ্জ জেলার ৪০ বছর পূর্তি উদযাপন উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা অনুষ্ঠিত।  বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠী কর্তৃক একুশের বইমেলা পরিদর্শন জগন্নাথপুরে ফুটবল টুর্নামেন্টে “পাড়ারগাঁও সোনার বাংলা স্পোর্টিং ক্লাব” চ্যাম্পিয়ন ধর্মপাশা খলাপাড়া গ্রামের লাকি আক্তার ব্রেস্ট ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীর পাশে কিয়ার এন্ড  সাইন ফাউন্ডেশন।  দেওয়ানগঞ্জে ‘দৈনিক সকালের সময়’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন পিপিএম পদক পেলেন গোপালগঞ্জের পুলিশ সুপার আল-বেলী আফিফা

জগন্নাথপুরে আলু ও পিয়াঁজ এর মূল্য আকাশচুম্বী

  • আপডেট সময় : শনিবার, ৪ নভেম্বর, ২০২৩
  • ৪৫ বার পঠিত
হুমায়ূন কবীর ফরীদি, স্টাফ রিপোর্টারঃ
জগন্নাথপুরে আলু ও পিঁয়াজ এর মূল্য  ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পেয়েছে। যার ফলশ্রুতিতে জনমনে অসন্তোষ বিরাজ করছে। বাজার মনিটরিং জোরদাবী জানিয়েছেন ক্রেতা সাধারণ।
৪ ঠা নভেম্বর রোজ শনিবার সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে ও জানাযায়, সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলা সদর বাজার, কলকলিয়া বাজার, চিলাউড়া বাজার, রসুলগঞ্জ বাজার, মীরপুর বাজার, রানীগঞ্জ বাজার ও মোহাম্মদগঞ্জ বাজার সহ উপজেলার সবকটি হাটবাজার এর ব্যবসায়ীরা সরকার কর্তৃক নির্ধারণকৃত মূল্যকে তোয়াক্কা না করে প্রতি কেজি আলু ৬০/৬৫ টাকায় ও পিঁয়াজ  ১২০ থেকে ১৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। অথচ গত চারপাঁচ দিন আগে এই আলু ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় ও প্রতি কেজি পিঁয়াজ ৭০ থেকে ৭৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে  এতে করে মধ্যবিত্ত ও নিম্ন আয়ের মানুষ এই সকল পণ্য ক্রয় করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। সরকারি ভাবে আলু ও পিঁয়াজ এর মূল্য নির্ধারণ করে দেওয়া হলেও তা জগন্নাথপুরে এখনো কার্যকর হয়নি।  জনস্বার্থে  বাজার মনিটরিং জোরদার করার জন্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের প্রতি জোরদাবী জানিয়েছেন জগন্নাথপুরবাসী।
এ ব্যাপারে বাজারে আসা সালাম, শেলিম ও সুজেল সহ একাধিক ক্রেতা তাদের অভিপ্রায় ব্যাক্ত করতে গিয়ে বলেন, নিত্যেপ্রয়োজনীয় দ্রব্য আলু ও পিঁয়াজ এর মূল্য ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে । তিন দিন আগেও এক কেজি আলু ৪৫ থেকে ৫০ টাকায় ও পিঁয়াজ ৭০ থেকে ৭৫ টাকায় ক্রয় করেছি। বর্তমানে আলু ৬০ টাকায় ও প্রকার ভেদে পিঁয়াজ ১২০ থেকে ১৪০ টাকায় ক্রয় করতে হচ্ছে।  আমরা নিম্ন আয়ের মানুষ আলু ও পিঁয়াজ ক্রয় করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছি। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করার জন্য সরকারের সুদৃষ্টি কামনা করছি।
এব্যাপারে মুদি দোকান ব্যবসায়ী সারজুল, আলী হোসেন, তুলু বাবু ও চিত্তরঞ্জন সহ একাধিক বিক্রেতা তাদের অভিপ্রায় ব্যাক্ত করতে গিয়ে বলেন, পাইকারীতে আলু ও পেঁয়াজ বেশি  মূল্যে করতে হচ্ছে। পাইকারি বাজারে দাম কমলে খুচরা বাজারে দাম কমবে।
সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park