1. admin@dailyhumanrightsnews24.com : admin :
মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ০৮:০৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
নড়াইলে পূর্বশত্রুতার জেরে নিলয় কে হত্যা,প্রধান আসামি সাকিল গ্রেফতার। জিলহজ্জ মাসের ফজিলত ও ইবাদত: গোপালগঞ্জের কাঠিতে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হামলা,ঘের বাড়ি লুটপাট আহত- ৫ জগন্নাথপুরে ভিজিডি’র চাল বিতরণ সম্পন্ন ভোটের সরঞ্জাম বিতরণ সম্পন্ন, অপেক্ষা শুধু ভোট রাজশাহী আরএমপিতে পুলিশ চেকপোস্টে দুই পুলিশকে মারধর করেছে একজন আটক ড. সৈয়দ জামিল আহমেদ এর সাথে বিনয়বাঁশী শিল্পীগোষ্ঠীর সৌজন্য সাক্ষাৎ জগন্নাথপুরে রাতের আধাঁরে ৩ টি ট্রান্সফরমার চুরি গোপালগঞ্জের হরিদাসপুর বাস মোটরসাইকেল সংঘর্ষে নিহত- এক গুরুত্বর আহত দুই। লোহাগড়ায় নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে ৪ জন প্রার্থী কে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা।

শেরপুর নিখোঁজের দুই দিন পর আ.লীগ নেতার লাশ উদ্ধার

  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৪ মে, ২০২৩
  • ৪৯ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ 

বগুড়া শেরপুরে নিখোঁজ হওয়ার দুই দিন পর আওয়ামী লীগ নেতার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আ.লীগ নেতার নাম মো. মহরম আলী খান (৪২)।

বুধবার (২৪মে) দুপুরে উপজেলার সীমাবাড়ী ইউনিয়নের  বাঙালি নদীর বগুড়া বাজার ব্রীজ এলাকা থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। পরে ময়না তদন্তের জন্য লাশ বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে পাঠানো হয়।

নিহত মহরম আলী একই ইউনিয়নের টাকাধুকুরিয়া গ্রামের তায়েজ আলী খানের ছেলে এবং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান খানের ছোট ভাই। তিনি সীমাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য পদে দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়া মহরম আলী ছাত্রজীবনে হাজি ওয়াহেদ মরিয়ম ডিগ্রী কলেজ সংসদের জিএসসহ ইউনিয়ন ছাত্রলীগ এবং যুবলীগের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেন। স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, বুধবার সকাল নয়টার দিকে বাঙালি নদীর ওপর নির্মিত বগুড়া বাজার ব্রীজের নিচে নদীর পানিতে একটি লাশ ভাসতে দেখতে পান। পরে থানায় সংবাদ দেওয়া হলে পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। পাশাপাশি লাশটি মহরম আলী খানের বলে নাম-পরিচয় সনাক্ত হয়। নিহতের বড় ভাই সীমাবাড়ী ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি আব্দুল মান্নান জানান, গত সোমবার (২২মে) বিকেলে বাড়ি থেকে বের হন মহরম আলী খান। এরপর আর বাড়ি ফিরেননি। পরে সম্ভাব্য সব জায়গায় তাকে খোঁজাখুঁজি করা হয়। কিন্তু তার কোনো সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। পাশাপাশি তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটিও বন্ধ পাওয়া যায়। এরইমধ্যে বুধবার সকালে নদীতে লাশ ভাসছে-এমন খবর পেয়ে সেখানে যাই।

একপর্যায়ে উদ্ধারের পর লাশটি ছোট ভাই মহরম আলীকে সনাক্ত করি। ভাই আব্দুল মান্নান, বোন শিউলি আক্তারসহ পরিবারের সব সদস্যদের দাবি, পরিকল্পিতভাবে মহরম আলীকে খুন করে তার লাশটি নদীতে ফেলে দেওয়া হয়। যাতে ঘটনাটি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করা সম্ভব হয়। আমরা এই হত্যকান্ডের বিচার চাই। সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার রহস্য উদঘাটনসহ খুনিদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার জন্য প্রশাসনের নিকট জোর দাবি জানান তারা।

শেরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বাবু কুমার সাহা এ প্রসঙ্গে বলেন, বাঙালি নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় মহরম আলীর লাশটি উদ্ধার করা হয়েছে। তাই এই মুহুর্তে মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে বলা সম্ভব হবে না। তবে মৃত্যুর কারণ জানতে ময়না তদন্তের জন্য নিহতের লাশ বগুড়ায় শজিমেক হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন হাতে পাওয়া গেলেই কেবল মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা ও বলা সম্ভব হবে।

তিনি আরো বলেন, এই ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা নেওয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© স্বত্ব সংরক্ষিত © ২০১৮ দৈনিক মানবাধিকার সংবাদ
Theme Customized By Shakil IT Park